মাদক প্রতিরোধের উপায়

মাদকাসক্তির প্রতিরোধ ও এর প্রতিকার কিভাবে করা যায়

মাদক প্রতিরোধে পরিবার ও সমাজের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। পারিবারিক ও সামাজিক সচেতনতা, শিক্ষা, পরিমিত জীবন যাপন, বন্ধু নির্বাচন, দায়িত্বশীলতা ইত্যাদি মাদকাসক্তি প্রতিরোধ ও প্রতিকারের পথ।

পারিবারিকভাবে

  • সন্তানের উপর খেয়াল রাখতে অবে যে সে কোন অস্বাভাবিক জীবন যাপন করছে কিনা, কেমন বন্ধু বান্ধবের সাথে সে মিশছে।
  • পরিবারের কেও মাদকে আসক্ত হলে তাকে এর খারাপ দিকগুলো বোঝাতে হবে এবং প্রয়োজনে চিকিৎসার মাধ্যমে তাকে সুস্থ করে তুলতে হবে।
  • খেলাধূলাসহ বিভিন্ন সামাজিক কাজে নিয়োজিত থাকতে উৎসাহিত করতে হবে।
  • তাদেরকে বোঝাতে হবে যে মাদকদ্রব্য সেবন বন্ধ করার জন্য নিজের ইচ্ছায় যথেষ্ট ।

সামাজিকভাবে

  • মাদক দ্রব্য প্রসার রোধে এর ক্তিক্র দিক সম্পর্কে গনসচেতনতা সৃষ্টি করা।
  • মাদকাসক্তদের সুস্থ করে সমাজে প্রতিষ্ঠা করা।
  • মাদকদ্রব্য সহজলভ্যতা রোধ করা।
  • নৈতিক শিক্ষা কার্যক্রম গ্রহণ করা।