যৌতুক কি

অনেকেই বিয়ের সময় উপহার দাবী করে, বলে এটা যৌতুক না, উপহার। অনেকের মনেই প্রশ্ন তাহলে যৌতুক আসলে কি?

কোনো কোনো সময় দেখা যায় যে, বিয়ের সময় বা পরে ছেলেপক্ষ মেয়েপক্ষের কাছ থেকে টাকা পয়সা বা ‘উপহার’ চেয়ে নেয়। বিয়ের আগে বা পরে বা বিয়ের সময় দুই পক্ষের মধ্যে কোনো মূল্যবান জিনিস বা সম্পত্তি দেয়া বা নেয়াকে যৌতুক বলে। জোর করে কোনো কিছু দাবী করলে তখন আর তা উপহার থাকে না। বাংলাদেশের আইনে যৌতুক দেয়া ও যৌতুক নেয়া দুটোই সমান অপরাধ। কেউ যৌতুক দেয়া–নেয়া করলে তার বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করা যাবে। অপরাধ প্রমাণিত হলে অপরাধীকে শাস্তি ভোগ করতে হবে।

এই অপরাধে এক থেকে পাঁচ বছরের জেল ও ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত জরিমানা হতে পারে। যে সব সম্পদ দেয়া নেয়াকে যৌতুক বলে তা হচ্ছে, ৫০০ টাকার উপরে নগদ অর্থ বা স্বর্ণ কিংবা রুপার অলংকার, জমি/বাড়ি/আসবাবপত্র বা গবাদি পশু/যানবাহন। যৌতুকের কারণে অনেক মেয়েকে স্বামী বা শ্বশুরবাড়ির লোকজনদের দ্বারা নির্যাতিত হতে হয়।

সূত্রঃ

১। আমি, আমার অধিকার, আমার সুস্থতা, বি জি এম ই এ, জাতিসংঘ জনসংখ্যা তহবিল ২০০৭।
২। আমদের জিজ্ঞাসা (৩) ইইসি, জাতিসংঘ জনসংখ্যা তহবিল, সেভ দ্যা চিলড্রেন, ২০০৫।
৩। জীবন ভাবনা - প্রথম অনুভূতি নতুন চিন্তা, আই ই এম ইউনিট, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর, জাতিসংঘ জনসংখ্যা তহবিল, ২০১৪।